নারায়ণগঞ্জে চারদিকে লাশের গন্ধ ! ১ দিনে ১৫ লাশ

নিরাক হাসানে প্রেম:

ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে ব্রাক্ষ্মণবাড়িয়া ও হবিগঞ্জে পৃথক দূর্ঘটনায় নিহত ১৫ জনই নারায়ণগঞ্জের বাসিন্দা বলে নিশ্চিত হওয়া গেছে। দূর্ঘটনা ও মৃত্যুর খবর পেয়ে নিহতদের পরিবারে চলছে শোকের মাতম। তাদের আহাজারি আর কান্নায় শোকাহত এলাকাবাসীও। তবে লাশ গ্রহণ করতে গিয়ে স্বজনরা নানাভাবে বিড়ম্বনা ও আর্থিক হয়রানির শিকার হয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।

বৃহস্পতিবার (৫ মার্চ) রাত দশটায় নারায়ণগঞ্জের বন্দর উপজেলার দেউলী ও নবীগঞ্জ এলাকার ১০ তরুন বন্ধু সিলেটে মাজার জিয়ারত করার উদ্দেশ্যে মাইক্রোবাসে যাত্রা করে। রাত আনুমানিক দেড়টার দিকে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে সুনামগঞ্জ থেকে বেপরোয়া গতিতে আসা একটি বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয় তাদের মাইক্রোবাসটির সাথে। এতে ঘটনাস্থলেই মাইক্রোবাসের চালকসহ নিহত হয় ৬ জন। আহতদের নেয়া হয় সেখানকার বিভিন্ন হাসপাতালে। নিহতদের সবার বয়স বিশ থেকে তেইশের মধ্যে। তাদের মৃত্যুর খবর শুনে পরিবারে নেমে আসে শোকেয় ছায়া।

তবে স্বজনদের অভিযোগ, লাশ আনতে গিয়ে নানা ধরণের বিড়ম্বনার শিকার হতে হয়েছে তাদের। সরকারিভাবেও কোন ধরণের সহযোগিতা দেয়া হচ্ছে না। লাশ শনাক্ত করতে ও বুঝে নিতে সব ক্ষেত্রেই পুলিশসহ সংশ্লিষ্টদের টাকা দিতে হচ্ছে বলে অভিযোগ করছেন তাদের স্বজনরা। পাশাপাশি সড়ক মহাসড়কগুলো যাত্রীদের চলাচলের জন্য নিরাপদ করতেও সরকারের কাছে দাবি করছেন তারা।

এদিকে জেলার ফতুল্লা থেকে বিয়ের কনে দেখতে সিলেট যাওয়ার পথে হবিগঞ্জে সড়ক দূর্ঘটনায় নারী ও শিশুসহ নিহত হয়েছেন নয়জন। স্বজনরা জানান, শুক্রবার ভোরে সদর উপজেলার ফতুল্লা থানার কুতুবপুর এলাকা থেকে ১৩জন হবিগঞ্জ জেলার নবীগঞ্জ উপজেলা এলাকায় কনে দেখতে যাওয়ার উদ্দেশ্যে মাইক্রোবাসে রওনা দেন। যাত্রাপথে সকাল সাড়ে সাতটায় কান্দিগাঁও এলাকায় ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের পাশে একটি গাছের সঙ্গে ধাক্কা লেগে মাইক্রোবাসটি উল্টে যায়। এতে ঘটনাস্থলে দুই নারী ও এক শিশুসহ নয়জন নিহত হন। আহত চারজনকে উদ্ধার করে স্থানীয় এম এ জি ওসমানি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। নিহত ও আহতরা একে অপরের নিকট আত্মীয়-স্বজন।

নিউজ২৪.ওয়েব/ সংবাদদাতা /নিরাক

news24 bd

Read Previous

সিদ্ধিরগঞ্জে অবৈধ গ্যাস সংযোগঃ গ্রেফতার-২

Read Next

নারী দিবসে রুবানা হক: মানুষ দিবস হওয়া উচিত, নারী না

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *