ধর্ষক মজনু ঢাবি ছাত্রীকে পাঁজাকোলা করে তুলে নিয়েছিল

অনলাইন ডেস্ক: রাজধানীর কুর্মিটোলায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রীকে জোর করে ধর্ষণের ঘটনায় চাঞ্চল্যকর তথ্য বেড়িয়ে আসছে। জানা যায় ঢাবির ছাত্রীকে রাস্তা থেকে পাঁজাকোলা করে তুলে নিয়ে গিয়েছিল ধর্ষক মজনু। গতকাল বুধবার (০৮ ডিসেম্বর) দুপুরে র‌্যাবের মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক সারোয়ার বিন কাশেম এক ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, ‘মজনু কোনো ক্লোরোফর্ম ব্যবহার করেনি। মূলত সে মেয়েটাকে ফলো করছিল। আর আপনারা দেখেছেন যে আমাদের ভিকটিম কিন্তু ক্ষীণকায়। তাকে সে পাঁজাকোলা করেই নিয়ে যায়।’

এ সময় মজনুর কাছে কোনো অস্ত্র ছিল না বলেও জানান সারোয়ার বিন কাশেম। তিনি বলেন, এর আগেও সে বিভিন্ন সময়ে প্রতিবন্ধী নারী ও ভিক্ষুককে একই জায়গায় ধর্ষণ করেছে।

এ সময় র‌্যাবের এক কর্মকর্তা জানান, ‘র‌্যাপিস্ট আমাদের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানিয়েছে, তার টার্গেট থাকতো মেইনলি মানসিক প্রতিবন্ধী ও ভিক্ষুক মেয়েদের ওপর। সে বলেছে, কমলাপুর রেলস্টেশনসহ বিভিন্ন জায়গা থেকে মানসিক প্রতিবন্ধী ও ভিক্ষুক মেয়েদের সংগ্রহ করে ওই জায়গায় আনতো। আপনারা জানেন যে, ল্যান্ডস্কিপিংয়ের কারণে ওই জায়গায় কিছু ঝোঁপ বা গুল্ম জাতীয় গাছ দিয়ে সৌন্দর্য বৃদ্ধি করা হয়েছে। এর আড়ালে খুব বেশি জঙ্গল নেই। আবার খুব বেশি আড়ালও নেই। তবে সন্ধ্যা থেকে রাতের দিকে ওই জায়গায় মানুষের আনাগোনাটা কম থাকে।’

তিনি বলেন, ‘এই প্রথম সে প্রতিবন্ধী ছাড়া অন্য মেয়েকে ধর্ষণ করেছে। তবে এ ক্ষেত্রে সবসময় যে সে একই জায়গা ব্যবহার করেছে তা সে স্বীকার করে নেয়নি।’

নিউজ২৪.ওয়েব/ডেস্ক/মৌ দাস

news24 bd

Read Previous

Hello world

Read Next

ঘুষ ও দুর্নীতির পৌনে ২ কোটি টাকাসহ প্রকল্প কর্মকর্তা আটক

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *