ঈশ্বরগঞ্জ রামদা দিয়ে ভাই-ভাতিজাসহ ৩ জনকে কুপিয়ে হত্যা

নিউজ২৪ ডেস্ক: ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলায় জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে দুই ভাইয়ের পরিবারের মধ্যে সংঘর্ষে বাবা-ছেলেসহ তিনজন নিহত হয়েছেন। এ সময় চারজন আহত হয়েছেন। বুধবার সকাল ৯টার দিকে উপজেলার কাঁঠাল ডাংরি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।নিহতরা হলেন- হাসিম উদ্দিন (৫৫), তার ছেলে জহিরুল ইসলাম (২০) ও জহিরুলের চাচাতো ভাই আজিজুল হক (২৮)।আহতদের মধ্যে নিহত হাসিম উদ্দিনের ছেলে খায়রুল ও মাজহারুল ও মেয়ে পপিকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

ময়মনসিংহের পুলিশ সুপার (এসপি) শাহ আবিদ হোসেন বলেন, উপজেলার কাঁঠাল ডাংরি গ্রামের নওয়াব আলীর দুই ছেলে আব্দুর রশিদ ও হাসিম উদ্দিনের পরিবারের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে জমি নিয়ে বিরোধ চলছিল। এরই জেরে বুধবার সকালে দুইপক্ষ সালিশ ডাকে। কিন্তু সালিশে বসার আগেই বুধবার সকাল ৯টার দিকে দুইপক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ লেগে যায়। এ সময় আব্দুর রশিদের লোকজন দেশীয় অস্ত্র নিয়ে হাসিম উদ্দিনের লোকদের ওপর হামলা চালায়। এতে সাতজন আহত হয়।

moymonsing

এসপি আবিদ হোসেন আরও বলেন, আহতদের উদ্ধার করে প্রথমে ঈশ্বরগঞ্জ হাসপাতালে নেয়া হলে হাসিম উদ্দিনের ছেলে জহিরুলকে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসক। বাকি ছয়জনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ায় পথে হাসিম উদ্দিন ও আজিজুল হক মারা যান। নিহতদের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

এদিকে, ঘটনার পরপরই পুলিশের ময়মনসিংহ রেঞ্জের ডিআইজি নিবাস চন্দ্র মাঝি ও ময়মনসিংহ জেলা পুলিশ সুপার (এসপি) শাহ আবিদ হোসেনসহ পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

পুলিশের ময়মনসিংহ রেঞ্জের ডিআইজি নিবাস চন্দ্র মাঝি বলেন, ঘটনাস্থল থেকে রক্তমাখা রামদা ও সাতটি বল্লমসহ ধারালো অস্ত্র উদ্ধার করা হয়েছে। ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এ ঘটনায় জড়িতদের গ্রেফতার করা হবে।

নিউজ২৪ ডেস্ক/সংবাদদাতা/হৃদয়

newstwo

Read Previous

১৫ই আগস্ট, ব্যক্তি নয় রাষ্ট্রকেই হত্যার চেষ্টা

Read Next

বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশনের মহাসচিব গ্রেফতার

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *